আজ ফুলদি’র সোহেল খানের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী

714
সোহেল খানের মৃত্যুবার্ষিকী

নিজস্ব প্রতিবেদক : আজ ফুলদি’র সোহেল খানের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী। গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার ফুলদী নিবাসী মরহুম আলী আজম খানের (নায়েব মিয়া) কনিষ্ঠ সন্তান, ফুলদী গ্রামের প্রিয় মানুষ, সমাজকর্মী সোহেল হাসিম খান (সোহেল মিয়া) গত বছর ২০২২ সালের এই দিনে সকালে কালীগঞ্জের নলছাটা রেলক্রসিং-এ এক মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মৃত্যুবরণ করেন।

 

তিনি বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত হোসেন খান ও কালীগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের শ্রম ও শিল্প বিষয়ক সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন খান রিপন এবং সাইফ পাওয়ারটেক এর চেয়ারম্যান নিগার সুলতানা সিথি’র ছোট ভাই। সোহেল খান অত্যন্ত ধর্মভীরু, সামাজিক ও সজ্জন ব্যক্তি হিসেবে এলাকায় সুপরিচিত ছিলেন। তার অকাল মৃত্যুতে পুরো ফুলদী গ্রামে শোকের ছায়া নেমে আসে। সোহেল খানের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী ।

 

সোহেল খান ”সাইফ পাওয়ারটেক”-এর ক্রয় বিভাগের ব্যবস্থাপক হিসাবে কর্মরত ছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৪ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে, এক মেয়েসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

 

ফুলদি’র সোহেল খানের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী

আজ ফুলদি’র সোহেল খানের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী। গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার ফুলদী নিবাসী মরহুম আলী আজম খানের (নায়েব মিয়া) কনিষ্ঠ সন্তান, ফুলদী গ্রামের প্রিয় মানুষ, সমাজকর্মী সোহেল হাসিম খান (সোহেল মিয়া) গত বছর ২০২২ সালের এই দিনে সকালে কালীগঞ্জের নলছাটা রেলক্রসিং-এ এক মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মৃত্যুবরণ করেন।

 

তিনি বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত হোসেন খান ও কালীগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের শ্রম ও শিল্প বিষয়ক সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন খান রিপন এবং সাইফ পাওয়ারটেক এর চেয়ারম্যান নিগার সুলতানা সিথি’র ছোট ভাই। সোহেল খান অত্যন্ত ধর্মভীরু, সামাজিক ও সজ্জন ব্যক্তি হিসেবে এলাকায় সুপরিচিত ছিলেন। তার অকাল মৃত্যুতে পুরো ফুলদী গ্রামে শোকের ছায়া নেমে আসে। সোহেল খানের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী ।

Related Post:
আজ শিল্পপতি হেলাল খানের দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকী